a

Free Astrology Tips বিবাহে বাধা কাটানো টোটকা

Free Astrology Tips বিবাহে বাধা কাটানো টোটকা

Free Astrology Tips এ আজকের বিষয়ে বিবাহে বাধা কাটানো টোটকা বা টিপস্। অনেক সময় দেখা যায়, বিবাহের জন্য কথা বার্তা এগোচ্ছে কিন্তু বিভিন্ন ভাবে বাধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে ফলে বিবাহ হচ্ছে না এদিকে বয়স কিন্তু বেড়েই চলেছে।

Read More জ্যোতিষ পরামর্শ নিন আর পেয়ে যান একটি লাইফ কোষ্ঠী বিনামূল্যে

a

বৈদিক সনাতন শাস্ত্র অনুসারে মোট পাঁচটি ফলপ্রদ টোটকা নিয়ে তৈরী আজকের বিষয়। সঠিক ভাবে বিশ্বাসের সাথে এই টোটকা গুলি পালন করলে বিবাহে বাধা কাটাতে পারবেন।

a

a

তাঁর আগে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, আগে সেই জাতক/জাতিকার জন্মছক বিচার করা প্রয়োজন। দেখে নিতে হবে যে , জন্মছকে কি কোন অশুভ গ্রহের প্রভাবে বারে বারে বিবাহে বাধা হচ্ছে ! তারে সাথে অবশ্যই বিবাহের যোগ কারক গ্রহ গুলির অবস্থান, দশা – অন্তরদশা ইত্যাদি।

a

Free Astrology Tips বিবাহে বাধা কাটানো টোটকা

a

আরো পড়ুন জ্যোতিষ পরামর্শ নিন আর পেয়ে যান একটি লাইফ কোষ্ঠী বিনামূল্যে

মনে রাখবেন জ্যোতিষ শাস্ত্র ভাগ্য বিচার করতে পারে কিন্তু জ্যোতিষ শাস্ত্র ভাগ্য বদলাতে পারে না।

আসুন জেনে নিন কি কি উপায় বিবাহে বাধা কাটানো যেতে পারে। Free Astrology Tips

  1. যদি কোন পাত্র/পাত্রীর বিবাহে বাধা থাকে তাহলে তারা এই টোটকার প্রয়োগ করতে পারেন। তবে যে কোন ক্রিয়া প্রয়োগ করতে হলে অবশ্যই গোপনীয়তা বজায় রাখা উচিত। জ্যোতিষ বিচারে যদি দেখেন আপনার বিবাহের যোগ চলছে তাহেল এই ক্রিয়াটি করুন। কোন একটি সদ্য বিবাহিত ছেলে বা মেয়ের মাথার উপর একটি সাদা ফুল 21 বার ঘুরিয়ে তাকে নিজের বিবাহের মনোস্কামনা জানান। এবং ঐ ফুলটি সেই ছেলে বা মেয়ের অনুমতি নিয়ে কোন একটি তুলসী বলায় পুঁতে দিন। এই ক্রিয়াটি কোন পূর্ণিমা তিথিতে সন্ধ্যা বেলায় করতে হবে।
  2. কোন একটি শুক্লপক্ষের বূহস্পতিবার করে এই ক্রিয়াটি শুরু করতে পারেন। বূহস্পতিবার স্নানের সময় স্নানের জলে সামান্য একটু হলুদ গুড়ো বা কাচা হলুদ বেটে মিশিয়ে নিন এবং ওঁ বূহস্পতয়ে নমঃ মন্ত্রে 11 বা 21 বার পাঠ করে ঐ জলে স্নান করুন। প্রতি বূহস্পতি বার এই ক্রিয়াটি করুন। ( যদি 11 বার জপ করেন তাহলে 11টি বূহস্পতির বার বা যদি 21 বার জপ করেন তাহলে 21 টি বূহস্পতিরবার এই ক্রিয়াটি করতে হবে। )
  3. বিবাহে বাধা দূর করতে প্রতিদিন রামায়নের সুন্দরা কান্ড পাঠ করুন।

Free Astrology Tips বিবাহে বাধা কাটানো টোটকা

  1. কোন মেয়ের যদি বিভিন্ন ভাবে বিবাহে বাধা সূষ্টি হয় তাহলে সবার আগে জন্মছক বিচার করিয়ে দেখে নিতে হবে যে আদেও বিবাহের যোগ চলছে কিনা। যদি বিবাহের যোগ চলছে অথচ বিবাহে বাধা দেখা যাচ্ছে তাহলে প্রতি সোমবার শিবলিঙ্গের নিজের মনোস্কামনা জানিয়ে তিনটি বেল-পাতা সাদা চন্দনের ফোটা দিয়ে অর্পণ করতে হবে। এবং গঙ্গা জল শিবলিঙ্গের মাথায় ঢালতে হবে। তার সাথে সোমবার নিরামিষ আহার করতে ভুলবেন না।
  2. এই টোটকাটি ছেলে বা মেয়ে উভয়ই করতে পারেন, যদি আপনাদের বিবাহে বাধা থাকে তাহলে। নিজেরাই শুক্লপক্ষের প্রথম বূহস্পতিবার দিন সন্ধ্যাবেলায় একটি কলা পাতার থালার উপর পাঁচরকম মিষ্টি দুটো ছোট এলাচ, শুদ্ধ ঘিয়ের প্রদীপ জ্বেলে ঐ থালাটি একটি নদীর জলে ভাসিয়ে দিন। জলে ভাসনোর সময় লক্ষ্য রাখবেন যাতে থালাটি ডুবে না যায় ( তেমন হলে মিষ্টি পরিমানে অল্প দেবেন কিন্তু পাঁচটি মিষ্টি যেন থাকে)। এই ভাবে পরপর তিনটি বূহস্পতিবার অপনাকে এই ক্রিয়াটি করতে হবে। দেখবেন আপনার বিবাহের যোগসূত্র খুলে যাচ্ছে। মনে মনে সংকল্প করবেন যে আপনার বিবাহের সকল বাধা দূর হয়ে যাক। এই ক্রিয়া প্রেমিক / প্রেমিকার দুজনে করতে পারেন যাতে আপনাদের বাড়ির দুই পক্ষ আপনাদের সম্পর্কটি মেনে নেয়। তবে যে কোন ক্রিয়াই খুব গোপনে করবেন। যেদিন ক্রিয়া করবেন সেই দিন নিরামিষ খাবেন।

  1. কোন একটি শুক্লপক্ষের বূহস্পতিবার করে এই ক্রিয়াটি শুরু করতে পারেন। বূহস্পতিবার স্নানের সময় স্নানের জলে সামান্য একটু হলুদ গুড়ো বা কাচা হলুদ বেটে মিশিয়ে নিন এবং ওঁ বূহস্পতয়ে নমঃ মন্ত্রে 11 বা 21 বার পাঠ করে ঐ জলে স্নান করুন। প্রতি বূহস্পতি বার এই ক্রিয়াটি করুন। ( যদি 11 বার জপ করেন তাহলে 11টি বূহস্পতির বার বা যদি 21 বার জপ করেন তাহলে 21 টি বূহস্পতিরবার এই ক্রিয়াটি করতে হবে। )
  2. বিবাহে বাধা দূর করতে প্রতিদিন রামায়নের সুন্দরা কান্ড পাঠ করুন।

 

  1. কোন মেয়ের যদি বিভিন্ন ভাবে বিবাহে বাধা সূষ্টি হয় তাহলে সবার আগে জন্মছক বিচার করিয়ে দেখে নিতে হবে যে আদেও বিবাহের যোগ চলছে কিনা। যদি বিবাহের যোগ চলছে অথচ বিবাহে বাধা দেখা যাচ্ছে তাহলে প্রতি সোমবার শিবলিঙ্গের নিজের মনোস্কামনা জানিয়ে তিনটি বেল-পাতা সাদা চন্দনের ফোটা দিয়ে অর্পণ করতে হবে। এবং গঙ্গা জল শিবলিঙ্গের মাথায় ঢালতে হবে। তার সাথে সোমবার নিরামিষ আহার করতে ভুলবেন না।
  2. এই টোটকাটি ছেলে বা মেয়ে উভয়ই করতে পারেন, যদি আপনাদের বিবাহে বাধা থাকে তাহলে। নিজেরাই শুক্লপক্ষের প্রথম বূহস্পতিবার দিন সন্ধ্যাবেলায় একটি কলা পাতার থালার উপর পাঁচরকম মিষ্টি দুটো ছোট এলাচ, শুদ্ধ ঘিয়ের প্রদীপ জ্বেলে ঐ থালাটি একটি নদীর জলে ভাসিয়ে দিন। জলে ভাসনোর সময় লক্ষ্য রাখবেন যাতে থালাটি ডুবে না যায় ( তেমন হলে মিষ্টি পরিমানে অল্প দেবেন কিন্তু পাঁচটি মিষ্টি যেন থাকে)। এই ভাবে পরপর তিনটি বূহস্পতিবার অপনাকে এই ক্রিয়াটি করতে হবে। দেখবেন আপনার বিবাহের যোগসূত্র খুলে যাচ্ছে। মনে মনে সংকল্প করবেন যে আপনার বিবাহের সকল বাধা দূর হয়ে যাক। এই ক্রিয়া প্রেমিক / প্রেমিকার দুজনে করতে পারেন যাতে আপনাদের বাড়ির দুই পক্ষ আপনাদের সম্পর্কটি মেনে নেয়। তবে যে কোন ক্রিয়াই খুব গোপনে করবেন। যেদিন ক্রিয়া করবেন সেই দিন নিরামিষ খাবেন।

বহু পাত্র / পাত্রী আছেন যাদের বিবাহের বয়স হয়ে যাচ্ছে কিন্তু বিবাহ হচ্ছে না বা বিবাহের কথাবার্তা এগোচ্ছে না, সম্বন্ধ আসতে আসতে কেটে যাচ্ছে তারা প্রয়োজন মনে করলে বিনামূল্যে আপনাদের জন্মছক বিচার করাতে পারেন। যোগাযোগ করুন 8240462156

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x