শিবের মন্ত্র শিবের ইচ্ছাপূরণ মন্ত্র মনোস্কামনা পুরোন হবেই হবে

শিবের মন্ত্র শিবের ইচ্ছাপূরণ মন্ত্র মনোস্কামনা পুরোন হবেই হবে

শিবের মন্ত্র এই প্রয়োগ বিধি আপনার মনোস্কামনা পুরােনের জন্য জেনে নিন

শিবের ইচ্ছাপূরণ মন্ত্র – সর্ব শক্তিমান দেবাদিব ভগবান শিবের শ্রীচরনে আমার শতকোটি বিনম্র প্রনাম জানিয়ে শিব মন্ত্র নামক এই পচ্ছদটি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম। সত্যম শিবম সুন্দর। যাহা সত্য তাহাই শিব যাহা শিব তাহাই সুন্দর। শিব কথার অর্থ হল মঙ্গল। অর্থাৎ শিব পরম মঙ্গলময়। আমরা সকলেই জানি শিবের আর্বিভাব জ্যোর্তিলিঙ্গ স্বরূপ। তিনি লিঙ্গরূপেইবিরাজমান এবং সকল স্থানে পূজিত হন। শিব পুরান থেকে জানা যায় – স্বয়ং ব্রহ্মা বলেছেন আমি কিংবা বিষ্ণু কেহই শিবের পরামদ্ভূত তত্ত্ব রূপ সম্পর্কে অবগত নহি।

শিবের মন্ত্র শিবের ইচ্ছাপূরণ মন্ত্র মনোস্কামনা পুরোন হবেই হবে

তিনি স্থল নহেন আবার সূক্ষও নহেন। তাহার আদি নাই, অন্ত নাই,ক্ষয় নাই,বৃদ্ধি নাই। তিনিই জগতের প্রধান কর্তা। তিনি সর্বময় লিঙ্গ রূপেই পূজিত হবেন। তাতেই তিনি প্রস্বন্ন বােধ করেন। এবং তিনি তার আরাধ্য সকল ভক্তকে সকল অভীষ্ট দান করেন। তার লিঙ্গ পূজনে জগতের সকল প্রকারদুখঃ বিনষ্ট হয়। আদিতেও শিব, মধ্যেও শিব, অন্তেও শিব।ভূত, ভবিষ্যৎ ও বর্তমান—এই ত্রিকালেই তিনি সর্বদা বর্তমান। তিনি মহান যােগী তার শরীরে কোন প্রকার দাগ নেই তিনি অতি পবিত্র তার সকল ভক্তের মনােস্কামনা পূরন করতে তিনি সর্বদা রূদ্ৰায়মান। কেবলমাত্র ‘ওম নমঃ শিবায়’এই মন্ত্রের সঠিক প্রয়ােগে আমরা জীবনে ও মনে শান্তি খুজে পাই। এবং আমাদের সকল প্রকার পাপনাশ হয়। আজ আপনাদের একটি খুবই গােপনীয় মন্ত্র উল্লেখ করব যার দ্বারা বা যার সঠীক প্রয়ােগে আপনারা অবশ্যই নিজ মনের ইচ্ছা পুরন করতে পারবেন।

আপনার বাড়ির জন্য 35টি বাস্তু টিপস্

মন্ত্রটি হল “ওম নমঃ ভগবতে রুদ্রায়” এটি খুবই গােপনীয় মন্ত্র। বেদেও এই মন্ত্রের উল্লেখ পাওয়া যায়। কিভাবে আপনারা এই মন্ত্রটি জপও প্রয়ােগ করবেন তা বর্ননা করছি। যদি কোথাও বুঝতে অসুবিধা হয় নিঃসংকোচে ফোন করুন, কারন সঠিক ভাবে মন্ত্র প্রয়ােগ না হলে কোন লাভই হবেনা। যা কোন সােমবার থেকে এই প্রয়ােগটি করা যেতে পারে। শ্রাবন মাসের যে কোনাে সােমবার এই মন্ত্র প্রয়ােগের সঠিক সময়। শ্রাবন মাসের প্রথম সােমবার থেকে যদি নিয়ম নিষ্ঠা মেনে এটি করতে পারেন তাহলে অবশ্যই ফল পাবেনই এতে কোন সন্দেহ নাই।

যেদিন আপনি এই শিব মন্ত্র টি প্রযােগ করবেন সেই দিন অবশ্যই নিরামিষ ভােজন করবেন। কোন পুরুষরা নারী এবং নারীরা পুরুষ সঙ্গ থেকে বিরত থাকবেন। যা কোনাে নির্জন শিব মন্দির, আপনার বাড়ির ঠাকুর ঘর, বা কোন নির্জন স্থান এই সাধনার পক্ষে উপযুক্ত। দরকার একটি প্রান প্রতিষ্ঠা যুক্ত রুদ্রাক্ষের মালা (এই মালায় জপ করেই মন্ত্রটি সক্রিয় করে তুলতে হবে), একটি পরিষ্কার কম্বলের আসন যাতে আপনি বসে মন্ত্র প্রয়ােগ করবেন। আর দরকার কিছু ধূপকাঠী এবং মােমবাতি যদি ঘিয়ের প্রদীপ হয় তাহলে অতি উত্তম।

শিবের মন্ত্র প্রয়োগ বিধি জেনে নিন

শিবের মন্ত্র শিবের ইচ্ছাপূরণ মন্ত্র মনোস্কামনা পুরোন হবেই হবে

 

শিবের ইচ্ছাপূরণ মন্ত্র কি ভাবে প্রয়োগ করবেন জেনে নিন – আপনি কম্বলের আসনটি পেতে উত্তর মুখে বা পূর্বমুখে বসে প্রথমে যারা দীক্ষা নিয়েছেন তারা নিজ গুরু মন্ত্র জপ করে নিন,আর যারা দীক্ষা নেননি তারা কেবল ১১ বার “ওম নমঃ শিবায়” এই মন্ত্রটি পাঠ করুন। এবার প্রানায়াম দ্বারা নিজেকে শুদ্ধ করে নিন এবার মহাদেবের ধ্যান করুন, চিন্তা করুন তিনি আপনার সামনে দন্ডায়মান। আপনি ওনার চরনে বসে আছেন ঠিক এইভাবে চিন্তা করতে করতে একটা গভীর শ্বাস গ্রহন করে খুব ধীরে ধীরে শ্বাস ত্যাগ। করুন। এবার আপনার অভীষ্ট উদ্দেশ্য জানিয়ে “ওম নমঃ ভগবতে রুদ্রায় এই মন্ত্রটি রুদ্রাক্ষের মালায় জপ করুন। মালায় কিভাবে জপ করতে হবে একবার।

শিবের মন্ত্র শিবের ইচ্ছাপূরণ মন্ত্র মনোস্কামনা পুরোন হবেই হবে

যদি ভুল জপ হয় তাহলে শুধুই সময় নষ্ট হবে। সঠিক নিয়ম মেনে এই ভাবে মাত্র ১০৮ বার করে জপ করুন। দেখবেন ধীরে ধীরে আপনার যে মনােস্কামনা জানিয়ে জপ শুরু করেছিলেন তা সফল হচ্ছে। ধীরে ধীরে প্রতিদিন জপ সংখ্যা বাড়তে পারেন। প্রতিবার আসন থেকে ওঠার আগে শিবের প্রনাম মন্ত্র পাঠকরতে ভুলবেন না। আমার কাছে অনেক উদাহরণ আছে যারা এই ভাবে জপ প্রয়ােগের মাধ্যমে কেবল নিজের মনােস্কামনাই নয়, সংসারের অনেক বাধাই দূর করতে সক্ষম হয়েছেন। চাই শুধু আপনার একাগ্রতা এবং ভক্তি, এই দুটির মাধ্যমে অনেক সমস্যা থেকে মুক্তি মেলে।কি পারবেন না ?

 

x